We’re Hiring

ঘনাদার চরিত্রে অভিনয় করার সুবর্ণসুযোগ

আমরা সম্প্রতি ঘনাদাকে রুপোলি পর্দায় আনার পরিকল্পনা করেছি, অর্থাৎ আমরা একটি ঘনাদার গল্প নিয়ে ফিল্ম বানানোর পরিকল্পনা করেছি। এইজন্য সম্ভবত ‘মশা’ গল্পটিকেই আমরা বেছে নেব।

আমরা খুঁজছি ঘনাদার মতো দেখতে শুধু নয়, তাঁর মতো মেজাজের এমন একজনকে যিনি অভিনয়টাও করতে পারেন জমিয়ে।

ঘনাদার চরিত্রে অভিনয় করতে গেলে যেগুগুলি আবশ্যক

  • পূর্বে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে
  • আপনার voice ও dialogue delivery ঘনাদার মতো হতে হবে, অর্থাৎ গল্পে ঘনাদা যেমনভাবে কথা বলেন, একেবারে সেই ঢংয়ের বাচনভঙ্গি চাই। অনেকটা এই audiostory-র ঘনাদার বাচনভঙ্গির মতো https://www.youtube.com/watch?v=97EB580ZY6I

মাদের পরিকল্পনা কিছুটা এইরকম

আমরা কিন্তু কোনোভাবেই ঘনাদার গল্প কে সিনেমার করার প্রচেষ্টা করছি না, আমরা সবাই জানি সিনেমা বানানো সহজ কাজ নয়। সিনেমা বানাতে হলে দর্শকদের আমাদের প্রতি অগাধ প্রত্যাশা তৈরি হবে, সেই পরীক্ষায় আমরা সফল নাও হতে পারি।

অন্যদিক দিয়ে ভাবলে, আমরা একটি অসাধারণ নাটক মঞ্চস্থ করতে পারি, সেক্ষেত্রে গল্পে উল্লিখিত জায়গা গুলির পারিপার্শ্বিক ছবি বা ভিডিও প্রোজেকশন করে বা গ্রীন স্ক্রিনের মাধ্যমে এডিট করে একটা সুন্দর আউটপুট পাওয়া যেতে পারে।

মশা গল্পটিকে যদি এইজন্য বেছে নিই, তাহলে আমাদের দুটি সেট লাগবে (বা তার বেশিও লাগতে পারে), একটি ঘনাদার মেস বাড়ি, দ্বিতীয় টি হলো নিশিমারার ল্যাবরেটরি, যেখানে বেশিরভাগ অভিনেতার অভিনয় ক্যামেরাবন্দি করা হবে।

গল্পের বাকি অংশ, অর্থাৎ travelling ও action-এর অংশগুলি গ্রীন স্ক্রিনের সামনে অভিনীত হলে VFX এর মাধ্যমে গ্রীন স্ক্রিন এর জায়গায় গল্পের চাহিদা মত আমরা বিভিন্ন environment এর ভিডিও/ছবি ইত্যাদি বসিয়ে নিতে পারি।

  • চিত্রনাট্য প্রায় উপরে দেওয়া YouTube লিঙ্কের গল্পের মতো হলেও অবশ্যই কিছুটা বদলাবে, কারণ এটা visual মাধ্যম।
  • ফিল্ম হলেও মূলত একটি নাটকের মঞ্চেই এটি অভিনীত হবে।
  • গল্পে উল্লিখিত কিছু বিশেষ পারিপার্শ্বিক দৃশ্য ফুটিয়ে তোলার জন্য দেশবিদেশের বিশেষকিছু আলোকচিত্র ও video clippings নেপথ্যে projection করা হবে।
  • পুরো নাটক-টি অনেকটা এইভাবে two-camera mode-এ তোলা হবে
  • পুরো shooting-টি সম্পূর্ণ হবার পর post-production-এর কাজ শেষ হলে সেটি YouTube ও অন্যান্য বিভিন্ন OTT (Hoichoi, Addatimes ও অন্যান্য) platform-এ সর্বসাধারণের জন্য প্রকাশ করা হবে।

পনি এই পরিকল্পনায় আগ্রহী থাকলে নীচের button-এ click করে

গল্পের বিখ্যাত চরিত্র ঘনাদাকে জীবন্ত করে তোলার জন্য
আমাদের ঘনাদা ক্লাবের উদ্যোগে পরিচালিত অন্যান্য কর্মকাণ্ড জানতে নীচে দেখুন:

ঘনাদা ক্লাব: বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কর্মসূচী

প্রিন্ট ফরম্যাটের জন্য এখানে ক্লিক করুন

ঘনাদা ক্লাব কলকাতায় নতুন করে চালু হয়েছে দীর্ঘদিন বন্ধ হয়ে পড়ে থাকা পুরোনো ক্লাবের ধারাবাহিকতাকে বজায় রেখে। প্রায় ৩৫ বছর পর গত ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ঘনাদা ক্লাবের প্রথম সন্মেলন আবার নতুন রূপে ফিরে এলো। নতুন উৎসাহউদ্দীপনা ও দৃষ্টিভঙ্গির সাহায্যে প্রেমেন্দ্র মিত্রের অমর সৃষ্টি ঘনাদা চরিত্রটিকে নানা ভাবে যুগোপযোগী করে সারা পৃথিবীর পাঠকের কাছে পৌঁছে দেওয়াই এই ক্লাবের মূল লক্ষ্য। এই লক্ষ্য নিয়ে ঘনাদা ক্লাব ইতিমধ্যেই অনেকগুলো কর্মসূচী নিয়েছে।

  • ওয়েবসাইট ও ফেসবুক: ইতিমধ্যে একটি ওয়েবসাইট ও ফেসবুক এর পেজ তৈরী হয়েছে।
    ফেসবুকের মাধ্যমে ক্লাবের সৃষ্টিশীল কাজগুলো সকলের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে।
    https://www.ghanada.com
    https://www.facebook.com/GhanadaClub
  • হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ: এর মাধ্যমে ইতিমধ্যেই ১৫০ সদস্য বিশিষ্ট একটি গ্রুপ তৈরী হয়েছে। যেখানে প্রতিনিয়ত ঘনাদা সংক্রান্ত কাজ এবং মতের আদান প্রদান হয়ে চলেছে।
    https://bit.ly/ghanada-club-whatsapp
  • ইউটিউব চ্যানেল: ঘনাদার সমস্ত (৬৮টি) গল্পই পাঠ হয়ে গ্যাছে। সুখবর এটাই যে বিভিন্ন লোকে ২,২১,৭০০ এর বেশী বার এগুলো দেখেছেন সর্বমোট ৬১,৭০০ ঘন্টা সময় ধরে এবং ২৪০০ এরও বেশি জন সাবসক্রাইব করেছেন। ইংরিজিতেও কয়েকটি গল্প পাঠ করা হয়েছে।
    https://www.youtube.com/GhanadaStories
  • ঘনাদার ট্রাভেলগ: ঘনাদা কোথায় কোথায় অভিযানে গিয়েছিলেন সেইসব জায়গার বিবরন দিয়ে ম্যাপ তৈরী এর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
    https://www.ghanada.com/travelogue/
  • ইংরেজী অনুবাদ: প্রায় ২০ টি গল্পের ইংরেজী অনুবাদ বই হিসেবে প্রকাশিত আছে। বাকি ৪৮ টি গল্পের মধ্যে আপাততঃ ৩০টি গল্পের অনুবাদ করা হয়েছে। Penguin India এর সাথে কথোপকথন হচ্ছে ১৫টি গল্প নিয়ে Ghanada Omnibus নামে বইটির প্রথম পর্ব প্রকাশ করার জন্য।  ইতিমধ্যেই আমরা প্রাথমিক সম্মতি পেয়েছি। আশা করা যায় যে ২০২১-এই এটি প্রকাশ হবে। পরে অন্য ভাষাতেও এই চেষ্টা করা হবে।
    https://www.ghanada.com/translations/
  • কমিকস: এখনও পর্যন্ত ১০টি গল্প কমিকস রূপে প্রকাশিত আছে। আমরা  এরই মধ্যে  ৫টি কমিকসকে নতুন আঙ্গিকে অডিও ভিসুয়াল রূপ দিতে পেরেছি।
    https://bit.ly/ghanada-av-comics
  • উইকিপিডিয়া পেজ: অনেক তথ্য দিয়ে  করা হয়েছে ঘনাদার উইকিপিডিয়া পেজ। https://en.wikipedia.org/wiki/Ghanada
  • গল্পগুলির টীকাকরণ: ঘনাদার গল্পের মধ্যে বিভিন্ন ঐতিহাসিক ঘটনা, ভৌগোলিক স্থান এবং বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের সংক্ষিপ্ত বিবরণ বা সটীক ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ৩০টি গল্প টীকাযুক্ত করা হয়েছে।
    https://www.ghanada.com/annotations/
  • রেজিস্টার্ড সোসাইটি: ঘনাদা ক্লাব কে একটি রেজিস্ট্রার্ড সোসাইটি হিসেবে গঠন করা এবং সভ্য করার নিয়মাবলী ও আনুষঙ্গিক আইন তৈরী করা। জানুয়ারির প্রথমে জমা দেওয়া হয়েছে।
  • ঘনাদা সমগ্র: ঘনাদা-র স্রষ্টা প্রেমেন্দ্র মিত্রের সাক্ষাৎকার এবং এ সংক্রান্ত বিভিন্ন বিজ্ঞাপন, অন্যদের লেখা বই, সাক্ষাৎকার – সংকলিত করে দুই মলাটে প্রকাশের চেষ্টা করা হবে।
  • ঘনাদা লাইব্রেরী ও মিউজিয়াম: শার্লক হোমসের আদলে একটি লাইব্রেরী ও মিউজিয়াম নির্মাণ করা।

কে বলতে পারে ঘনাদা তাঁর পুরনো মেসবাড়িতে নতুন বাসিন্দাদের নিয়ে চলেও তো আসতে পারেন কোনোদিন!